স্ত্রীর সাথে রুবেলের সেলফি দেখে যা বললেন ‘সাবেক প্রেমিকা’ হ্যাপি

অভিনেত্রী নাজনীন আক্তার হ্যাপির সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে বেশ আলোচিত হয়েছিলেন জাতীয় ক্রিকেট দলের পেসার রুবেল হোসেন।

২০১৪ সালর ১৩ ডিসেম্বর রাজধানীর মিরপুর মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে হ্যাপি বাদী হয়ে তাঁর বিরুদ্ধে মামলাও করেছিলেন। আর এই কারণে দুদিন কারাগারেও থাকতে হয়েছিল তাঁকে।

সেই হ্যাপিকে ভুলে আলোচিত এই পেসার হঠাৎ করে ২০১৬ সালে অগোচরে বিয়ে করেন। তবে সেটি মিডিয়ার একেবারেই বাইরের একজনের সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধেছেন তিনি। অবশ্য সে সময় তাঁকে সামনে নিয়ে আসেননি। দীর্ঘদিন পরে গত শনিবার সকালে ফেসবুকে স্ত্রী ইসরাত জাহান দোলাকে নিয়ে দুটি সেলফি পোস্ট করেন জাতীয় দলের এই ক্রিকেটার। তাতে ক্যাপশন দেন, ‘আমার স্ত্রী।’

এদিকে রুবেল নিজের স্ত্রীর সঙ্গে ফেসবুকে পোস্ট করার পর থেকেই চলচ্চিত্র পাড়া থেকে বিদায় নিয়ে বর্তমানে ধর্মের কাজে মনোনিবেশ হওয়া হ্যাপির মতামত জানতে অনেকে আগ্রহ প্রকাশ করছেন। এসব নিয়ে রুবেলের সাবেক প্রেমিকা ফেসবুকে জানিয়েছেন তার বক্তব্য।

হ্যাপি নিজের ফেসবুক প্রোফাইল থেকে তার জবাব দিয়ে বলেন, ‘অনেকে আমার বিয়ে নিয়ে খুব চিন্তা ফিকির করছেন! অনেকে নানা রকম কল্পনা-জল্পনা করছেন! কেউ কেউ বলছেন গোপনে বিয়ে করেছি, কেউ কেউ বলছেন বিয়ে করতে যাচ্ছি, কেউ আবার পারলে আমাকে এখনই বিয়ে দিয়ে দেন! আপনাদের বানানো নানারকম সব গল্পে সত্যিই আমি বিরক্ত! সবার উদ্দেশ্যে বলছি…’

‘আমার বিয়ে নিয়ে আপাতত কোনো পরিকল্পনা নেই। আমি সম্পূর্ণ মনোযোগ পড়াশোনায় দিতে চাই। এখন ‘মিজান জামাতে’ পড়াশুনা করছি আলহামদুলিল্লাহ! নিয়ত আছে আলেমা হওয়ার, ইফতা পড়ার, যদি আল্লাহ কবুল করেন! আমার জন্য দোয়া করবেন। আশা করি সবার উত্তর পেয়ে গেছেন।’

উল্লেখ্য, এক সময় বাংলাদেশের উঠতি মডেল ছিলেন নাজনীন আক্তার হ্যাপি। জনপ্রিয়ও হয়ে উঠেছিলেন। তবে বছর দুয়েক আগে চলচ্চিত্র পাড়া থেকে বিদায় নিয়ে ধর্মের কাজে মনোনিবেশ করেন হ্যাপি। তিনি নিজের নাম বদল করে রাখেন আমাতুল্লাহ।

এর আগে একবার হ্যাপির আইডি হ্যাক হয়ে বিয়ের গুজব বের হয়েছিল। পরে হ্যাপি আরেকটি স্ট্যাটাস দিয়ে তার বিয়ে না হওয়ার কথা জানিয়েছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *