চড়ক উৎসব, চড়ক পূজা, চড়ক মেলা, বড়শি ঘুল্লা, যাদের হার্ড দুর্বল তারা দেখবেন না (ভিডিও)

চড়ক উৎসব, চড়ক পূজা, চড়ক মেলা, বড়শি ঘুল্লা, যাদের হার্ড দুর্বল তারা দেখবেন না (ভিডিও)

অনেকেই মুখের কালো দাগের সমস্যায় ভুগে থাকেন। আপনিও কি এই সমস্যায় ভুগছেন? সাধারণত ব্রণ বা ফুসকুড়ি সেরে যাওয়ার পর মুখের ত্বকে এই ধরনের কালো দাগ রেখে যায়। সঠিক চিকিৎসায় ব্রণ এবং মুখের কালো দাগের হাত থেকে মুক্তি মেলে ঠিকই, কিন্তু তার জন্য যে সব ওষুধ বা ক্রিম জাতীয় জিনিস ব্যবহার করতে হয় সেগুলো আসলে ব্যয়বহুল, তেমনই তা থেকে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ারও ভয় থেকে যায়।

এ নিয়ে আয়ুর্বেদিক জার্নাল ফর মেডিকেল সায়েন্সেস-এ প্রকাশিত একটি রিপোর্টে তেমনই এক ঘরোয়া এবং নির্ভরযোগ্য উপায়ে, মাত্র ৭ দিনে মুখের ত্বককে দাগমুক্ত করা যাবে।

চলুন জেনে নেয়া যাক, কীভাবে ঘরোয়া উপায়ে খুব সহজে পাবেন দাগমুক্ত মুখ-

১. লেবুর রস সরাসরি মুখের দাগযুক্ত অংশে লাগিয়ে নিন। ১৫-২০ মিনিট পরে পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। দিনে অন্তত দুই বার এমনটা করুন। ৫-৭ দিনের মধ্যে ফলাফল বুঝতে পারবেন।

২. এক চা চামচ মধুর সঙ্গে এক চা চামচ পাতি লেবুর রস মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণ মুখের কালো দাগের উপর হালকা ভাবে লাগিয়ে নিন। ১৫-২০ মিনিট পর মুখ ধুয়ে ফেলুন।

৩. এছাড়াও, এক চা চামচ পাতি লেবুর রসের সঙ্গে মিশিয়ে নিন এক চা চামচ টমেটোর রস। সেই মিশ্রণে যদি এক চা চামচ ওটমিল দিয়ে নিতে পারেন তবে আরো ভাল ফল মিলবে। মুখে দাগের অংশে এই মিশ্রণ লাগিয়ে মিনিট ১৫ পরে পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। দিনে দুই বার এমনটা করলে দ্রুত ফল মিলবে।

প্রসঙ্গত, আসলে লেবুতে যে সাইট্রিক অ্যাসিড থাকে, তা ত্বকের পক্ষে খুবই উপকারী। এটি ত্বকের উপর একটি অদৃশ্য সুরক্ষাকবচ তৈরি করে। সেই সঙ্গে ব্রণ বা ফুসকুড়ির কারণ হিসেবে কাজ করে যেসব ব্যাকটেরিয়া, সেগুলিকেও মারে, এবং ত্বকের তৈলাক্তভাব দূর করে। তাই আজই শুরু করে দিন এই পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াহীন ঘরোয়া কৌশলগুলি আর এক সপ্তাহে পেয়ে যান দাগমুক্ত মুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *